এক দিনমজুর বালিকা ৪.৯৩ পয়েন্ট নিয়ে এসএসসি পাস করেছেন।

জেলা প্রতিনিধি জয়পুরহাট:  জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার কোতয়ালী বাগ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শিলভিয়া পাউরিয়া, পিতা ফনি পাউরিয়া মাতা তারা হাসদা গ্রাম বাগুয়ান ডাক: কোতোয়ালী বাগ, উপজেলা পাঁচবিবি জেলা জয়পুরহাট, ধর্ম খ্রিস্টান (আদিবাসী) ৪.৯৩ পয়েন্ট নিয়ে এসএসসি পাস করেন।
দিনমজুর বালিকার খোঁজ নিতে গিয়ে দেখা যায় তার অভিভাবকের নিজস্ব কোন জমিজমা নেই, তার তিন মেয়ের মধ্যে দুই মেয়েকে বিয়ে দিয়েছেন, বয়সের ভারে ও অসুস্থতার কারণে সংসারে নিয়মিত পরিশ্রম করতে পারেন না তবুও ক্ষুধার জ্বালায় দিনমজুর হিসেবে অন্যের জমিতে ও কৃষিক্ষেতে কাজকর্ম করে জীবিকা নির্বাহ করেন।
তাতেও সংসারের চাহিদা না মিটাতে পাড়ায় ক্লাস সেভেনে পড়ুয়া মেয়ে শিলভিয়া পাউরিয়াকে অন্যের জমিতে শ্রমিক হিসাবে কাজ করতে পাঠান, তারপর থেকে শিলভিয়া অন্যের জমিতে কাজ করে লেখাপড়ার চাহিদা যোগান দেন।
সাপ্তাহিক শুক্রবার ছুটির দিন ও ক্লাস টাইম এর বাহিরে ও অন্যান্য সময়ে, মানুষের জমির কাজ চুক্তি করে সম্পন্ন করে দেন, সেখান থেকে যে টাকা উপার্জন হয় সংসারে খরচ করেন এবং লেখাপড়ার খরচ যোগান।
এসএসসি পাশের ফলাফল প্রকাশ পাওয়ার পর  তার পরিবার খুব খুশি, তার বাবা ফনি পাউরিয়া বলেন আমার যদি টাকা থাকতো তাহলে আমার মেয়ের জন্য উচ্চশিক্ষা লাভ করার পিছনে খরচ করতাম। শিলভিয়া বলেন সংসার দেখাশোনার দায়িত্ব আমার উপরে যদি না থাকতো এবং লেখাপড়ার খরচ আমাকে জোগাড় করতে না হতো তাহলে পরীক্ষার ফলাফল আরো ভালো হতো। শিলভিয়া আরো বলেন আমি ডাক্তার অথবা নার্স হওয়ার স্বপ্ন দেখি কিন্তু অর্থ ছাড়া এই স্বপ্ন পূর্ণ হবে না, তবে আমি লেখাপড়ার সুযোগ পাইলে খুব ভাল করব এরকম আশা করি।
শিলভিয়া আরো বলেন আমি একজন উপজাতি হওয়াতে অন্যান্য জাতির শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আচরণগত সমস্যা ভাষাগত সমস্যা সহ অনেক সমস্যা মোকাবেলা করতে হয়েছে এখন মনে হয় আমরা সবাই এক জাতি, তা হলো বাঙালি।
সিলভিয়া ব্র্যাক প্রাথমিক বিদ্যালয় হইতে পঞ্চম শ্রেণী হইতে ২০১৫ সালে ৩.৫৮ পয়েন্ট নিয়ে সফলভাবে উত্তীর্ণ হয়েছেন এবং ষষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তি হয়েছেন, ২০১৮ সালে জে এস সি পরীক্ষায় ৩.৫৭ গ্রেডে পাস করেন, ও ২০২১ সালে এসএসসি পরীক্ষা ৪.৯৩ পয়েন্টে নিয়ে পাস করেন। রেজিস্ট্রেশন নাম্বার ২৭০০১৩২০০৯, রোল নাম্বার ১৩৬৪২৯, কারিগরি শিক্ষা বোর্ড, ঢাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*