বিশ্বকাপে টিকে থাকতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের চাই ১৯০ রান

আগেই বিদায় নিশ্চিত হয়েছে শ্রীলঙ্কার। কাগজে-কলমে সম্ভাবনা বেঁচে রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের। কিন্তু আজ আবুধাবিতে ক্যারিবীয়দের সেই সম্ভাবনার সলীল সমাধি দেওয়ার বন্দোবস্তই যেন করে রাখল লঙ্কানরা। আগে ব্যাট করে ১৮৯ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছে দাসুন শানাকার দল।

সুপার টুয়েলভে এখন পর্যন্ত তিন ম্যাচ খেলে একটি জিতেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আজকেরটিসহ শেষের দুই ম্যাচ জিতলে নেট রান রেটের মারপ্যাঁচে সেমিতে গেলেও যেতে পারে তারা। সেজন্য অবশ্য চাই বড় ব্যবধানের জয়। কিন্তু চারিথ আসালাঙ্কার তাণ্ডবে পড়ে ম্যাচ জেতাই কঠিন চ্যালেঞ্জ হয়ে গেছে ক্যারিবীয়দের জন্য।

আবুধাবিতে ম্যাচটিতে টস জিতে লাঙ্কানদের আগে ব্যাটিংয়ে পাঠান ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড। উদ্বোধনী জুটিতে ৪২ রান যোগ করেন কুশল পেরেরা ও পাথুম নিসাঙ্কা। আউট হওয়ার আগে ২ চার ও ১ ছয়ের মারে ২১ বলে ২৯ রান করেন কুশল। পাওয়ার প্লে’তে শ্রীলঙ্কা পায় ৪৮ রান।

দ্বিতীয় উইকেটে ম্যারাথন জুটি গড়েন দুই ইনফর্ম ব্যাটার চারিথ আসালাঙ্কা ও পাথুম নিসাঙ্কা। দুজন মিলে ১০.১ ওভারে যোগ করেন ৯১ রান। ইনিংসের ১৬তম ওভারে সাজঘরে ফেরার আগে চলতি বিশ্বকাপে নিজের তৃতীয় ফিফটি করেন নিসাঙ্কা। তার ব্যাট থেকে আসে ৪১ বলে ৫১ রানের ইনিংস।

নিসাঙ্কার চেয়ে বেশিই মারমুখী ছিলেন আসালাঙ্কা। তিনি ফিফটি করতে খেলেন ৩৩ বল। সেখানেই থেমে থাকেননি। এরপর আরও সাত বল থেকে করেন ১৮ রান। ইনিংসের ১৯তম ওভারে ফেরার আগে ৪১ বলে ৮ চার ও ১ ছয়ের মারে ৬৮ রানের ঝকঝকে ইনিংস উপহার দেন আসালাঙ্কা।

কম যাননি লঙ্কান অধিনায়ক দাসুন শানাকাও। শেষদিকে অপরাজিত ক্যামিও ইনিংসে শানাকা করেন ১৪ বলে ২৫ রান। যেখানে ছিলো দুইটি চার ও একটি ছয়ের মার। শানাকার এই ক্যামিওতে ১৮৯ রানে পৌঁছায় শ্রীলঙ্কার ইনিংস। ম্যাচ জিতে বিশ্বকাপে টিকে থাকতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে করতে হবে ১৯০ রান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*